নির্ধারিত ভাড়ার বেশি আদায় করলে গণপরিবহনের নিবন্ধন-পারমিট বাতিল হবে

প্রকাশিত: ১:৫৬ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২০

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় থেকে একটি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। এই নির্দেশনা মোতাবেক, করোনাভাইরাস সঙ্কটের মধ্যে যদি কেউ স্বাস্থ্যবিধি না মানে বা অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে তাহলে সেই গণপরিবহনের রেজিস্ট্রেশন ও রুট পারমিট বাতিল করা হবে।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ মঙ্গলবার এই নির্দেশনা দিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যানকে চিঠি পাঠিয়েছে।

গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টি গত কয়েক দিনে সংবাদমাধ্যমে আসার বিষয়টি তুলে ধরে চিঠিতে বলা হয়, “এটা সরকারি নির্দেশনা ও সড়ক পরিবহন আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।”

যেসব গণপরিবহন স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পাশাপাশি ২০১৮ সালের ‘সড়ক পরিবহন আইন, এর সংশ্লিষ্ট ধারা/প্রচলিত বিধি-বিধান অনুযায়ী রেজিস্ট্রেশন ও রুট পারমিট বাতিল করে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগে জানাতে বলা হয়েছে বিআরটিএ চেয়ারম্যানকে।

মহামারীর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মানাসহ অর্ধিক যাত্রী পরিবহনের শর্তে গণপরিবহন চালানোর অনুমতি দিয়েছে সরকার। সেজন্য মালিকদের ক্ষতি পোষাতে ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হলেও অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে।

সরকারকে প্রতিশ্রুতি দিয়েও যারা গণপরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে, তারা ‘গণদুশমন’ আখ্যায়িত করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মঙ্গলবার বলেন, যারা প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করছেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।