করোনাকালে ঘরে বসেই খেলোয়াড়রা আয় করছেন কোটি টাকা

প্রকাশিত: ১০:৩৮ অপরাহ্ণ, জুন ৫, ২০২০
করোনাকালে স্পন্সর পোস্ট থেকে বিরাট কোহলীর আয় প্রায় দেড় কোটি।

বর্তমান সময়ে অনেকেই ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করেন এবং নিয়মিত পোস্টও করে থাকেন। এই সবকিছুই মূলত বন্ধু বান্ধবদের দেখানোর জন্য, অথবা  সময় কাটানো বা মনের প্রশান্তির জন্যই করে থাকেন সবাই। এই ব্যাপারটাই বিরাট কোহলি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, লিওনেল মেসি বা নেইমারদের জন্য একটু অন্য রকম। ক্রীড়া জগতের এইসব তারকা খেলোয়াড়রা ইনস্টাগ্রামে পোস্ট দিয়েও নিয়মিত আয় করেন। সেই আয়ের অংকটাও অনেক বেশি। ইনস্টাগ্রাম পোস্ট থেকে খেলোয়াড়দের মাঝে এই সময়ে সবচেয়ে বেশি আয় করছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলী।

ইনস্টাগ্রাম পোস্ট থেকে কোহলী কত টাকা আয় করেন শুনলে চমকে যেতে পারেন। ভারতীয় অধিনায়ক লকডাউনের সময়টায় ইনস্টাগ্রামের স্পন্সরড পোস্ট থেকে আয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০ ধনী অ্যাথলেটের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছেন।

অ্যাটেইন (Attain) সংগৃহীত উপাত্ত অনুযায়ী, ইনস্টাগ্রামের ১০ সেরা উপার্জনকারী ক্রীড়াবিদের তালিকায় কোহলি আছেন ৬ নম্বরে। গত ১২ মার্চ থেকে ১৪ মে পর্যন্ত করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সারাবিশ্ব যখন লকডাউন, তখন বাসায় বসেই অবিশ্বাস্য আয় করেছেন তিনি।

তালিকা অনুযায়ী, কোহলি তার স্পন্সরড পোস্টের মাধ্যমে মোট আয় করেছেন ৩৭৯,২৯৪ পাউন্ড। এর মধ্যে প্রতি পোস্ট থেকে আয় ১২৬,৪৩১ পাউন্ড। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ১ কোটি ৩৬ লাখ ২৬ হাজার টাকার মতো। সবমিলিয়ে প্রায় ৪ কোটি ৮ লাখ ৭৬ হাজার টাকা। ভাবা যায়!

ইনস্টাগ্রামে আয়ের এই তালিকায় শীর্ষে আছেন পর্তুগিজ ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তিনি মোট আয় করেছেন ১.৮ মিলিয়ন পাউন্ড ( প্রায় ১৯ কোটি ৩৯ লাখ ৪৮ হাজার টাকা)। দুই নম্বরে থাকা আর্জেন্টাইন খুদেরাজ লিওনেল মেসির আয় ১.২ মিলিয়ন পাউন্ড (প্রায় ১২ কোটি ৯৩ লাখ ৩২ হাজার টাকা)। আর ১.১ মিলিয়ন (প্রায় ১১ কোটি ৮৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকা) আয়ে তিন নম্বরে ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার।

এছাড়া সেরা পাঁচে আছেন আমেরিকান বাস্কেটবল গ্রেট শাকুইল ও’নিল (৫৮৩,৬২৮ পাউন্ড) এবং সাবেক ইংলিশ ফুটবল কিংবদন্তি ডেভিড বেকহ্যাম (৪০৫,৩৫৯ পাউন্ড)।

কোহলির পর আছেন সুইডিশ ফুটবলার জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ (১৮৪, ৪১৩ পাউন্ড), আমেরিকান সাবেক এনবিএ তারকা ডোয়াইন ওয়েড (১৪৩,১৪৬ পাউন্ড), ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার দানি আলভেজ (১৩৯,৬৯৪ পাউন্ড) এবং ব্রিটিশ বক্সার অ্যান্থনি জশোয়া (১২১,৫০০ পাউন্ড)।