রিয়াজ

অভিনয়েই ডুবে থাকতে চান মোহাম্মদ রিয়াজ

অভিনয়ের নেশাটা তার রক্তে। অভিনয়ের নেশাটা তার মঞ্চ থেকেই শুরু। সময়টা ৯০ এর দশকে নাট্য সংগঠন মুখোমুখির ‘প্রতিযোগিতা’ নাটক মঞ্চায়নের মধ্য দিয়ে। এরপর অভিনয়ের নেশায় ঘুরেছেন থিয়েটার যুগান্তর, ঢাকা রঙ্গপীঠজগন্নাথ নাট্য সংসদএ। কাজ করেছেন প্রতিযোগীতা, ফলাফল শূণ্য, চেয়ার, আমি নারী তাইসহ অসংখ্য নাটকে।

এরই মধ্যে মঞ্চ নাটক দেখে মুগ্ধ হলেন খ্যাতিমান চিত্রপরিচালক এহতেশাম। প্রস্তাব দিলেন পরদেশী বাবু চলচ্চিত্রে অভিনয়ের। চিত্রনায়ক ফেরদৌসের সাথে সেকেন্ড লীড করার। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস! রক্ষণশীল পরিবার থেকে কিছুতেই মিললো না চলচ্চিত্রে অভিনয়ের অনুমতি। সেই কষ্ট বুকে চেপে নীরবে অভিনয় থেকে বিদায় নিলেন মোহাম্মদ রিয়াজ।

অভিমানে টানা ১০ বছর বিরতি। ভেবেছিলেন আর কখনো এ পথে পা বাড়াবেন না। কিন্তু অভিনয়ের নেশা যে তার রক্তে! আর সময়ের পালাবদলে অভিভাবকদের মানষিকতায়ও এলো পরিবর্তন। তাই আবারো ফিরলেন পাফরমিং জগতে। নিম্প বিউটি লোশন এবং প্রাইম মিটার, পার পর দুটো প্রডাক্টের মডেল হলেন তিনি। প্রথমটিতে সহশিল্পী হলেন সুমাইয়া শিমু আর দ্বিতীয়টিতে আবুল হায়াৎ ও লাকী ইনাম। কিছু সিঙ্গেল নাটকেও অভিনয় করে ফেললেন।

বর্তমানে বাংলাভিশনের বিড়ম্বণা নামক ধারাবাহিকে উল্লেখযোগ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। এরই মধ্যে কথা পাকা হয়েছে রিয়াজ রনির মূলধারার চলচ্চিত্র ভুলএ অভিনয়েরও। পেছনের সব কষ্ট ভুলে বর্তমানে অভিনয়ের মধ্যেই ডুবে থাকতে চান মোহাম্মদ রিয়াজ।

Add your comment

Your email address will not be published.