স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে বিশ্ব একাদশ বনাম বাংলাদেশ! 1

স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে বিশ্ব একাদশ বনাম বাংলাদেশ!

২০২০ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী। তার পরের বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পূর্তি। এগুলোকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড দারুণ কিছু আয়োজন করার পরিকল্পনা করছে। সেটা হতে পারে বিশ্ব একাদশ বনাম বাংলাদেশ একাদশ ম্যাচ। যেখানে বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা সেরা ক্রিকেটাররা খেলবেন।

এ বিষয়ে আজ মঙ্গলবার অল্প-বিস্তর ধারনা দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

তিনি বলেছেন, ‘সামনে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী আছে। তার পরের বছর আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী। এটাকে উপলক্ষ্য করে আমরা এখন থেকেই একটা প্ল্যান করছি। আমরা অলরেডি এটা নিয়ে কথাবার্তা বলছি। আমরা এমন একটা কিছু করতে চাচ্ছি যেখানে সারা পৃথিবীর যারা ক্রিকেট দেখে, তারা যেন এক সাথে বসে দেখতে চায়। তবে এটা খুবই প্রাথমিক পর্যায়ে আছে। এখনো কারো সাথে আলাপ হয়নি।’

‘বিশ্বকাপ একাদশ বনাম বাংলাদেশ একাদশ। এই ধরনের কিছুই। তবে সবকিছু নির্ভর করছে আন্তর্জাতিক সূচির ওপর। সবগুলো দেশকে পাওয়া খুব কঠিন। খেলা নেই এমন পাওয়া খুব কঠিন। এই জন্য সব থেকে বেশি খেলোয়াড় দেশ থেকে এনে একটা রিপ্রেজেন্টেটিভ ম্যাচ খেলা প্লাস আইসিসি থেকে ওটা স্বীকৃতি পাওয়া। এটা নিয়ে ইতিমধ্যে আমরা আইসিসিকে লিখেছি। আমরা কাজ করছি।’ যোগ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, ‘কি করলে মাক্সিমাম দেশের খেলোয়াড়, শুধু মাক্সিমাম দেশের খেলোয়াড় না, নামকরা খেলোয়াড় যারা আছে তাদেরকে কিভাবে আনা যায়, সেই জিনিসটা নিয়ে আমরা কাজ করছি। আমরা চাই সবচেয়ে নামকরা ক্রিকেটাররা এখানে এসে খেলবে। এটা নিয়ে আলাপ করছি। যেহেতু প্রাথমিক পর্যায়ে আছে, এখন কিছু কমিট করা তো প্রশ্নই ওঠে না। প্রথমে আমরা চাচ্ছি আইসিসির স্বীকৃতি। তাহলে আমরা এক ধাপ এগিয়ে গেলাম। নেক্সট কাজ হচ্ছে, বড় বড় দেশের সাথে, ইন্ডিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডএদের পার্টিসিপেশন নিশ্চিত করা। তারপর আমাদের দেখতে হচ্ছে কোথায় ফাঁকা আছে, যেখানে সবাই ব্যস্ত না এবং তাদের সেরা খেলোয়াড়দের পাওয়া সম্ভব। তারপর নির্ভর করবে সেরা খেলোয়াড় আমাদের এখানে আসতে চায় কিনা। আমরা চেষ্টা করছি সবচেয়ে আকর্ষণীয় একটা খেলা বাংলাদেশে করার জন্য।’

 

সুত্র : রাইজিংবিডি

Add your comment

Your email address will not be published.