সাহায্যের অতিরিক্ত অর্থ নিহতদের পরিবারকে দেবে ‘ডিম বালক’ 1

সাহায্যের অতিরিক্ত অর্থ নিহতদের পরিবারকে দেবে ‘ডিম বালক’

নেটিজেনদের কাছ পাওয়া অতিরিক্ত অর্থ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ হামলায় নিহতদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সেই ‘ডিম বালক’। অস্ট্রেলিয়ান সিনেটরের মাথায় ডিম ভেঙ্গে শিরোনামে উঠে আসে সে।

ওই কিশোরের জন্য ‘মানি ফর এগবয়’নামে এক তহবিল খোলা হয়েছে। সেখানে ইতোমধ্যে ৪২ হাজার ডলার জমা পড়েছে। বাংলাদেশী টাকায় যা প্রায় ৩৪ লাখ টাকা।

এই অর্থ কিশোরের আইনি ব্যয় মেটানো আর ‘আরো বেশি ডিম কেনার’ জন্য ব্যবহৃত হবে বলে জানানো হয়। তবে ওই ‘ডিম বয়’ যার আসল নাম উইল কনোলি তিনি জানান, অত টাকা নিতে তিনি রাজি নন।আইনি খরচ বাদ দিয়ে পুরো টাকাটাই ক্রাইস্টচার্চ হামলায় নিহতদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সে।

কুইন্সল্যান্ডের সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং শনিবার মেলবোর্নে যখন সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন, সে সময় ১৭ বছরের ওই কিশোর তার মাথায় একটি ডিম ভাঙ্গে।

ভিডিওতে দেখা যায়, এরপরে সিনেটর অ্যানিং তাকে কয়েক দফা আঘাত করেন। এ সময় নিরাপত্তা কর্মীরা এতে তাকে সরিয়ে নিয়ে যায় এবং কিশোরকে মাটিতে ফেলে ধরে রাখে।

বার্তা সংস্থা প্রেস এসোসিয়েশন বলছে, পুলিশ জানিয়েছে যে ওই কিশোরকে আটক করা হলেও কোন অভিযোগ না এনেই পরবর্তীতে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে আরো তদন্তের পরে ঠিক করা হবে, এই ঘটনায় কোন অভিযোগ গঠন করা হবে কিনা।

ভিক্টোরিয়া পুলিশ রয়টার্সকে জানিয়েছে, তারা পুরো ঘটনাটি গভীরভাবে তদন্ত করে দেখছে এবং এখানে ১৭ বছরের এক কিশোর জড়িত রয়েছে।

নিউজিল্যান্ড মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মুসলমান অভিবাসীদের দায়ী করে মন্তব্যের কারণে অ্যানিং কড়া সমালোচনার মুখে পড়েছেন। শুক্রবার দুটি ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলার ঘটনায় অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছে।

তবে ডিম হামলার ঘটনার পরে- যে ঘটনায় ওই কিশোরকে গ্রেপ্তার করা হলেও অভিযোগ না এনেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে- অনেক সমর্থক টুইটারে তাকে ‘হিরো’ বলে সম্বোধন করছেন।

রয়টার্স বলছে, ডিম ছুড়ে মারার ওই ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। টুইটারে #eggboy নামে একটি ট্রেন্ডও চালু হয়ে গেছে।

টুইটার ব্যবহারকারী ডেফিলিব্রাটর টুইট করেছেন, ‘ডিম বালক বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে যে, যখন আপনি দমন, ঘৃণা বা অশুভের বিরুদ্ধে দাঁড়াবেন,তখন ধর্ম, বয়স বা গোত্র কোন বিষয় না। আপনার শুধুমাত্র একটি পবিত্র মন দরকার এবং ডিম বালকের স্বর্ণের তৈরি হৃদয় রয়েছে। তোমার ভালো হোক।’

আমেরিকান অভিনেত্রী চেলসি পেরেত্তি লিখেছেন, ‘কেন ডিম বালক আমাকে এভাবে কাঁদালো?’ নিউজিল্যান্ডের রক ব্যান্ড আননোন মর্টাল অর্কেস্ট্রা সংক্ষেপে লিখেছে, ‘ডিম বালক প্রেরণা।’

 

সূত্র : একুশে টেলিভিশন

Add your comment

Your email address will not be published.