রিজার্ভ চুরির মামলায় বাংলাদেশের পাশে থাকবে ফেডারেল রিজার্ভ 1

রিজার্ভ চুরির মামলায় বাংলাদেশের পাশে থাকবে ফেডারেল রিজার্ভ

রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ফিলিপাইনের রিজল কমার্শিয়াল ব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলায় বাংলাদেশ ব্যাংকের পাশে থাকবে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ।

নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে চুরি যাওয়া অর্থ উদ্ধারে ফিলিপাইনের রিজল কমার্শিয়াল ব্যাংকের (আরসিবিসি) বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে মামলা করে বাংলাদেশ ব্যাংক। বৃহস্পতিবার নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে দায়ের করা মামলায় আরসিবিসি এবং রিজার্ভ চুরির ঘটনায় জড়িতদের আসামি করা হয়েছে।

আরসিবিসি এই মামলাকে ‘ভিত্তিহীন’ ও ‘যুক্তরাষ্ট্রের বিচার প্রক্রিয়ার বাহিরে’ বলে অভিহিত করেছে।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যাংকিং চুরির ঘটনায় দুর্বৃত্তরা ৮১ মিলিয়ন ডলার ব্যাংলাদেশ ব্যাংকের তহবিল থেকে হাতিয়ে নেয়। এসব অর্থ আরসিবিসি হয়ে ফিলিপাইনের জুয়ার আসরে লগ্নি করা হয়। এসব অর্থের মধ্যে কেবল ১৫ মিলিয়ন ডলার উদ্ধার করতে পেরেছে বাংলাদেশ।

অচিহ্নিত হ্যাকাররা বাংলাদেশ ব্যাংক এবং বৈশ্বিক আর্থিক লেনদেন ব্যবস্থা ‘সুইফট’ এর নেটওয়ার্কের নিরাপত্তা বলয় ভেঙে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভের নিউ ইয়র্ক শাখায় ভুয়া নির্দেশনা পাঠিয়ে এ অর্থ হাতিয়ে নেয়।

বৃহস্পতিবার দায়ের করা মামলায় বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতি সহযোগিতার সমঝোতা সম্পর্কে জানেন এমন এক ব্যক্তি জানান, নিউ ইয়র্ক ফেডারেল রিজার্ভ হলফনামা প্রস্তুত করবে এবং মামলার বিচার কিংবা শুনানিতে তাদের কর্মীদের প্রশ্ন করার সুযোগ করে দেবে। এ ছাড়া, বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা যেন প্রাসঙ্গিক ও তথ্যগত ব্যাপারে নিউ ইয়র্ক ফেডারেল রিজার্ভের কর্মীদের সাক্ষাৎকার নিতে পারেন, সে ব্যবস্থা করবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক অভিযোগ করেছে, উত্তর কোরিয়ার বেনামী হ্যাকাররা ‘নেসটেড’ ও ‘ম্যাকট্রাক’সহ কয়েকটি ম্যালওয়ার ব্যবহার করে তাদের নেটওয়ার্কে প্রবেশ করে ওই অর্থ হাতিয়ে নেয়।

 

তথ্য : রয়টার্স

Add your comment

Your email address will not be published.