মার্চকে ‌‌'নারী গ্রাহকসেবা' মাস ঘোষণা করল জনতা ব্যাংক 1

মার্চকে ‌‌’নারী গ্রাহকসেবা’ মাস ঘোষণা করল জনতা ব্যাংক

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে মার্চ মাসকে ‘নারী গ্রাহক বিশেষ সেবা মাস’ হিসেবে ঘোষণা করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত জনতা ব্যাংক। এ মাসে ব্যাংকের প্রতিটি শাখায় নারী গ্রাহকদের সর্বোত্তম সেবা নিশ্চিতে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ও দ্রুততম সময়ের মধ্যে সেবা দিতে খোলা হয়েছে আলাদা ক্যাশ কাউন্টার। দিবসটি উপলক্ষে নেওয়া কার্যক্রম যথাযথ মর্যাদায় পরিপালন নিশ্চিত করতে একটি অফিস আদেশও জারি করা হয়েছে, যা ব্যাংকটির সব শাখায় পাঠানো হয়েছে। শুধু নারী গ্রাহকদের নয়, এ ব্যাংকে কর্মরত নারী কর্মীদের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে প্রতিটি শাখায় এখন সংরক্ষিত ওয়াশরুম, টয়লেট ও বিশ্রামাগারের ব্যবস্থা রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জনতা ব্যাংকের এমডি ও সিইও মো. আব্দুছ ছালাম আজাদ বলেন, জনতা ব্যাংকে নারীবান্ধব ব্যাংকিং সেবা প্রদানের জন্য সর্বস্তরে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে; এখানে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে এবং অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সর্বোত্তম সেবা পাবেন। যাতে নারীরা সেবা গ্রহণকালে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। তিনি বলেন, “আমাদের ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান লূনা শামসুদ্দোহা নিজেই একজন সফল নারী উদ্যোক্তা। তিনি দিবসটির তাৎপর্য অনুধাবন করে মার্চ-২০১৯ কে ‘নারী গ্রাহক বিশেষ সেবা মাস’ হিসেবে ঘোষণা করেছেন। ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়সহ প্রতিটি শাখা যাতে এটি যথাযথ মর্যাদায় পরিপালন করে সে জন্য তার নির্দেশে একটি অফিস আদেশও জারি করা হয়েছে; যা সব শাখাকে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে অবগত করা হয়েছে।

তিনি জানান, দিবসটি উপলক্ষে ব্যাংকের প্রতিটি শাখার অভ্যন্তরে মার্চ মাসব্যাপী ‘নারী গ্রাহক বিশেষ সেবা মাস’ সংবলিত ব্যানার প্রদর্শন করা হচ্ছে। নারী গ্রাহকদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সর্বোত্তম সেবা দিতে প্রতিটি শাখায় আলাদা কাউন্টারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। শুধু নারী গ্রাহকই নন, আমাদের কর্মরত নারী কর্মীদের জন্যও আলাদা ওয়াশরুম, টয়লেট ও বিশ্রামাগারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি বলেন, শুধু নারী দিবস উপলক্ষেই নয়, জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবে যোগ দেওয়ার পর থেকেই আমাদের চেয়ারম্যান প্রধান কার্যালয়সহ সব শাখায় প্রতি মাসের তৃতীয় সপ্তাহকে ‘নারী গ্রাহক সপ্তাহ’ ঘোষণা করেছেন এবং তা পালন করা হচ্ছে।

মহিলা উদ্যোক্তা উন্নয়ন ও অর্থায়ন কর্মসূচি এবং গ্রামীণ নারী কর্মসংস্থান ঋণ প্রকল্প। এর মধ্যে মহিলা উদ্যোক্তা অর্থায়ন কর্মসূচির আওতায় নারী উদ্যোক্তারা সহজ শর্তে সহায়ক জামানত ছাড়াই ৫০ হাজার থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণসুবিধা নিতে পারছেন। একই সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে সমঝোতা স্মারকের আওতায় পুনরর্থায়ন তহবিল থেকে সহায়ক জামানত ছাড়াই নারী উদ্যোক্তাদের জন্য ২৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণসুবিধা চালু রয়েছে।

 

সুত্র : একুশে টেলিভিশন

Add your comment

Your email address will not be published.