বাংলাদেশি ডাক্তারদের প্রশংসা করলেন ডা. দেবী শেঠি 1

বাংলাদেশি ডাক্তারদের প্রশংসা করলেন ডা. দেবী শেঠি

ভারতের বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠি আজ বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে চিকিৎসা প্রদানকারী বাংলাদেশি চিকিৎসকদের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।

শেঠি বলেন, বাংলাদেশের চিকিৎসকরা অসাধারণ চিকিৎসা প্রদান করেছে। এর চেয়ে ভালো চিকিৎসা আপনি এমনকি উন্নত দেশগুলোতেও আশা করতে পারেন না।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এই বৈঠক শেষে ডা. শেঠিকে উদ্ধৃত করে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে একথা বলেন।

শেঠি সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীর সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কেও প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

তিনি উন্নত চিকিৎসার জন্য মন্ত্রীকে বিদেশে পাঠানোর পরামর্শ দিয়ে বলেন, এমন একজন খ্যাতনামা ব্যক্তির চিকিৎসা করতে স্থানীয় চিকিৎসকদের অনেক চাপের মধ্য দিয়ে যেতে হয়।

প্রধানমন্ত্রী সেতুমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ডাকে দ্রুত সাড়া দিয়ে বাংলাদেশে আসা ডা. শেঠিকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসার ব্যাপারে আপনার মতামত শুনতে আমি উদগ্রীব ছিলাম। এর জবাবে শেঠি বলেন, আপনি যখনই ডাকবেন আমি বাংলাদেশে আসব। প্রধানমন্ত্রী শেঠির সঙ্গে দেশের চিকিৎসাসেবা সম্পর্কে আলোচনা করেন।

প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কথা উল্লেখ করে বলেন, চিকিৎসা বিদ্যার শিক্ষার্থীরা যাতে স্নাতকোত্তর ও গবেষণা এখানে সম্পন্ন করতে পারে এজন্য দেশে প্রথম এ ধরনের এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করা হয়। চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতেও এ ধরনের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

ভারতের এই হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নতির ভূয়সী প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, বিগত কয়েক বছরে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের উল্লেখযোগ্য আর্থ-সামাজিক উন্নতি হয়েছে।

সেতুমন্ত্রীকে পরীক্ষার পর বিএসএমএমইউ হাসপাতালে শেঠি ব্রিফিংয়ে বলেন, ওবায়দুল কাদেরের রক্তচাপ ভালোর দিকে এবং তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

হৃদরোগে আক্রান্ত হলে সেতুমন্ত্রীকে গতকাল এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ডা. শেঠি বলেন, অবস্থা গতকালের চেয়ে ভাল। তবে শঙ্কামুক্ত নয়। এখানকার চিকিৎসকগণ যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন।

তিনি একটি ভাড়া করা বিমানে আজ দুপুর পৌনে একটায় হযরত শাহজালাল বিমান বন্দরে অবতরণ করেন। সেতুমন্ত্রীকে দেখতে সেখান থেকে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ছবি ও সূত্র- বাসস

 

Add your comment

Your email address will not be published.