ট্রেন যাবে গোপালগঞ্জে 1

ট্রেন যাবে গোপালগঞ্জে

গোপালগঞ্জ বাসীর স্বপ্নের রেল যোগাযোগ শুরু হচ্ছে আজ বৃহস্পতিবার ১ নভেম্বর। সকাল ১০ টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে আনুষ্ঠানিক ট্রেন চলাচল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এর আগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর পরীক্ষামূলকভাবে ট্রেন চালানো হয় এ লাইনে। কাশিয়ানি থেকে গোপালগঞ্জ পর্যন্ত ৪৪ কিলোমিটার রেলপথ নির্মাণে ব্যয় হয়েছে দুই হাজার ১১০ কোটি ২৭ লাখ টাকা। রেলপথ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মো. রফিকুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।

মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টরা জানান, ১৯৩২ সালে রেলওয়ের কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া সেকশনটি চালু করা হয়েছিল। সেটি ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত চালু ছিল। এই রেললাইন পুনরায় চালু হলে বাংলাদেশ রেল যোগাযোগের ক্ষেত্রে তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এ লাইনের মাধ্যমে যোগাযোগের জন্য পরিত্যক্ত কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া সেকশনটি চালু হবে এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মস্থান ও সমাধিস্থল খ্যাত টুঙ্গীপাড়া উপজেলাকে বিদ্যমান রেলওয়ে নেটওয়ার্কের সঙ্গে সংযুক্ত করা হবে।

এ ছাড়া ঢাকা-মাওয়া-জাজিরা-ভাঙ্গা পর্যন্ত নতুন রেললাইন নির্মাণের জন্য একটি প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (উন্নয়ন) মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘পরে দ্বিতীয় পর্যায়ে ভাঙ্গা হয়ে যশোর সংযোগ লাইনে যুক্ত হবে এটি। এ অবস্থায় কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া সেকশন পুনর্বাসন এবং কাশিয়ানী থেকে গোপালগঞ্জ হয়ে টুঙ্গীপাড়া পর্যন্ত নতুন রেল লাইন স্থাপন সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে হবে।’

Add your comment

Your email address will not be published.