কুমিল্লায় আলু তুলতে ব্যস্ত কষৃক 1

কুমিল্লায় আলু তুলতে ব্যস্ত কষৃক

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় এবার আলুর ফলন ভাল হওয়ায় কৃষকের মুখে ফুটে উঠেছে আনন্দের হাসি। চলিত বছরে গোল সোনার আলুর বাম্পার ফলনে কৃষকের চোখে স্বপ্নের হাতছানি দিচ্ছে। সপ্তাহখানেক ধরে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার ৮ টি ইউনিয়ন জুড়ে আলু তোলার উৎসব শুরু হয়েছে।

আলু তুলার কাজে কৃষকের সঙ্গে কৃষাণী ও শিশুরাও নেমে পড়েছে মাঠে। বাম্পার ফলন তো রয়েছেই, তার সঙ্গে উত্তোলনের শুরুতেই এবার আলুর বেশ ভালো দাম পাচ্ছেন কৃষকরা। তাই তো কৃষকের ঘরে বাইরে, উঠানে, হাটে মাঠে ঘাটে সর্বত্রই গোল সোনার আলু গড়াগড়ি খাচ্ছে। এবার আলুতে বেশ লাভবান হবেন কৃষকরা, এমন আশায় বুকে বেঁধেছেন জেলার কয়েকশ আলু চাষী।

সরজমিনে উপজেলার রামনগর, অলুয়া, মনোহরপুর, আসাদনগর, চন্ডিপুর, শিদলাই, মাধবপুর, চান্দলা, গোপলনগর সহ বিভিন্ন গ্রামের ঘুরে দেখা গেছে, কৃষকরা শেষ সময়ে আলু তুলায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। উপজেলার মালাপাড়া ইউনিয়নের চরাঞ্চলের গ্রামে গ্রামে দিগন্ত জোড়া মাঠের পর মাঠ জুড়ে যেন গোল সোনা আলুর সমারোহ। চারপাশে যেদিকে দৃষ্টি পড়ে সর্বত্র শুধুই আলু আর আলুর দৃশ্য চোখে পড়ে।

সরেজমিনে দেখা গেছে কৃষকরা মাঠের মাটি খুঁড়ে তুলে আনছে একেকটি গোল সোনা। আবার উত্তোলন শেষে মাঠেই গোল আলু স্তুপ করে রাখছেন। আবার কেউ কেউ সোনার আলু বস্তা বন্দী করে করে বিক্রির জন্য প্রস্তুত করছেন। কেউবা বস্তাবন্দি আলু সংরক্ষণের জন্য কোল্ড স্টোরেজে নিয়ে যাচ্ছেন।

এছাড়াও দেখা গেছে প্রতিটি জমিতে আলু চাষের পাশাপাশি মিষ্টি কুমড়া, তরমুজ, ভাঙ্গি এবং টমাটো চাষ করেছে কৃষকরা। তারা জানিয়েছেন, আলু চাষে লাভবান না হলেও সার, সেচসহ একই খরচে মিষ্ট কুমড়া, তরমুজ ও ভাঙ্গি বিক্রি করে বিনা খরচে অধিক অর্থ আয় হয়।

উপজেলার গোপালনগর গ্রামের চাষী মোহাব্বত আলী জানান, আলু তুলার শুরুতেই আলুর ভালো দাম পাওয়া যাচ্ছে। জমি থেকেই প্রতি মন আলু স্থানীয়দের কাছে বিক্রি হচ্ছে ৬শ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। দাম এর চেয়ে আরো বাড়বে বলে তারা আশাবাদী।

এসময় তিনি আরো বলেন, সরকার যদি আলুর দামের বিষয়টা বিবেচনা করে এবং সরকারী ভাবে আলু সংরক্ষনের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করে তাহলে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় আগামীতে আলু চাষীরা সোনালী স্বপ্ন পূরনের পথ দেখবে।

এই ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ মতিউল আলম জানান, এবার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় ১শ হেক্টর জমিতে আলুর চাষ হয়েছে। গত বছরের তুলনায় কৃষকরা এবছর আলু চাষে ভালো দাম পাচ্ছে এবং আমরা আশা করছি আগামী মৌসুমে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্র দ্বিগুণ হবে।

 

সুত্র : আমাদের কুমিল্লা .কম

Add your comment

Your email address will not be published.