একনেকে ১৪ উন্নয়ন প্রকল্প উঠছে আজ 1

একনেকে ১৪ উন্নয়ন প্রকল্প উঠছে আজ

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে আজ উঠছে ১৪টি উন্নয়ন প্রকল্প। এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। এটি চলতি অর্থবছরের ১৭তম সভা।

এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ১২ হাজার ৪৬০ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। তবে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের জনবলের যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা পুনর্নির্ধারণ এবং প্রকল্পের সংযুক্ত জনবলের বিশেষ ভাতা প্রদানের বিষয়ে একটি প্রকল্প উপস্থাপন করা হলেও সেজন্য আলাদা কোনো ব্যয় বাড়ছে না।

মোট প্রকল্প ব্যয় ১ লাখ ১৩ হাজার ৯২ কোটি ৯১ লাখ টাকাই থাকছে। ফলে এ ব্যয় মোট ১৫ প্রকল্পের ব্যয়ের সঙ্গে যোগ করা হয়নি। এছাড়া একটি প্রকল্প প্রত্যাহার করার জন্য উপস্থাপন করা হবে একনেকে।

পরিকল্পনা কমিশনের দায়িত্বশীল একাধিক কর্মকর্তা জানান, ২৫ ফেব্রুয়ারি একনেকের জন্য নোটিশ জারি করে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়।

একনেকে উঠতে যাওয়া প্রকল্পগুলো হচ্ছে- বড়পুকুরিয়া-বগুড়া-কালিয়াকৈর ৪০০ কেভি লাইন স্থাপন প্রকল্প। এটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৩ হাজার ৩২২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। মীরসরাইয়ে ভারতীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের নিমিত্ত ভূমি অধিগ্রহণ, ব্যয় হবে ৮৪৫ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কে পায়রা নদীর ওপর পায়রা সেতু (লেবুখালী সেতু) নির্মাণ, ব্যয় ১ হাজার ৪৪৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

ফেনী-নোয়াখালী জাতীয় মহাসড়কের ২ লেন অংশে (মহিপাল হতে চৌমুহনী পূর্ববাজার পর্যন্ত)-৪ লেনে উন্নীতকরণ, ব্যয় হবে ৭৪৭ কোটি টাকা। মোংলা বন্দরের জন্য অত্যাবশ্যকীয় যন্ত্রপাতি সংগ্রহ, ব্যয় হবে ৪৩৫ কোটি টাকা।

ঢাকা শহরে ডাক বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আবাসিক ভবন নির্মাণ, ব্যয় ৩৭৬ কোটি টাকা। চট্টগ্রাম মহানগরীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ, জলাবদ্ধতা নিরসন ও নিষ্কাশন উন্নয়ন, ব্যয় হবে ১ হাজার ৬২০ কোটি ৭৩ লাখ টাকা। কুড়িগ্রামের চিলমারী ও উলিপুর উপজেলায় ব্রহ্মপুত্র নদের ডানতীরে ভাঙন রোধ, ব্যয় ৩০২ কোটি টাকা।

সোনাগাজী ও মীরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চল সংযোগ সড়কে ফেনী নদীর ওপর সেতু নির্মাণ, ব্যয় ৬৬২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষক পর্যায়ে উন্নতমানের ধান, গম ও পাটবীজ উৎপাদন, সংরক্ষণ ও বিতরণ, ব্যয় ২৬৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরের ৬৪টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের সক্ষমতা বৃদ্ধি, ব্যয় ১ হাজার ৫৩৩ কোটি ৮৩ লাখ টাকা এবং গোপালগঞ্জ এসেনশিয়াল ড্রাগস কোম্পানি লিমিটেডের তৃতীয় শাখা কারখানা স্থাপন প্রকল্প।

এটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৭৯৯ কোটি টাকা। অন্যদিকে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বহুতল ভবন নির্মাণ প্রকল্পটি উপস্থাপন করা হচ্ছে এর অনুমোদন বাতিল করতে। কেননা ২ হাজার ২৭৩ কোটি টাকা ব্যয়ের এ প্রকল্পটি বাতিল করে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ফ্ল্যাট তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে।

 

সুত্র : একুশে টেলিভিশন

Add your comment

Your email address will not be published.