আকাশবীণা’র উদ্বোধন

আকাশবীণা’র উদ্বোধন

আকাশবীণার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া সম্পূর্ণ নতুন বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার আকাশবীণা’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ ০৫-০৯-২০১৮ (বুধবার) দুপুর ১২:৩০ ঘটিকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে অনুষ্ঠিত ড্রিমলাইনারের অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার বিমানকে একটি আধুনিক এয়ারলাইন্স হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বহর আধুনিকায়নের অংশ হিসেবে একের পর এক নতুন উড়োজাহাজ সংগ্রহ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজ বহরে যুক্ত হলো অত্যাধুনিক বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার। তিনি বিমানের সাফল্য কামনা করে বিমানের জয়যাত্রা অব্যাহত থাকার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী জনাব এ, কে, এম শাহজাহান কামাল। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল মুহাম্মদ ইনামুল বারী, বিবিপি, এনডিইউ, পিএসসি (অবঃ), বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের সচিব জনাব মোঃ মহিবুল হক এবং বিমান ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ।

 

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী ড্রিমলাইনারের অভিষেক উপলক্ষ্যে কেক কাটেন এবং এ সময় বিমানের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনারের একটি বিশেষ মডেল উপহার দেওয়া হয়। পরে প্রধানমন্ত্রী উড়োজাহাজের ফিতা কাটেন এবং উড়োজাহাজ পরিদর্শন করেন।

 

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর আজ সন্ধ্যা ০৭:১৫ মিনিটে বিজি-০৮৬ ফ্লাইটে মালয়েশিয়ায় যাওয়ার মধ্য দিয়ে ড্রিমলাইনার তার বাণিজিক যাত্রা শুরু করবে।

গত ১৯ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্র থেকে ঢাকায় আসে বিমানটি। ড্রিমলাইনার দিয়ে প্রাথমিকভাবে ঢাকা-সিঙ্গাপুর ও ঢাকা-কুয়ালালামপুর রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। ড্রিমলাইনার আকাশবীণা যুক্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে বিমান বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫টিতে। প্রধানমন্ত্রীর পছন্দে এর নামকরণ করা হয় আকাশবীণা।

Add your comment

Your email address will not be published.